কোটা আন্দোলন নিয়ে বিএনপি সুবিধা নিতে চেয়েছিল : সেতুমন্ত্রী

কোটা আন্দোলনকারীদের সব কাজই ‘জঙ্গিবাদের বহিঃপ্রকাশ’ বলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ড. আখতারুজ্জামান যে বক্তব্য দিয়েছেন তার সঙ্গে আওয়ামী লীগ পুরোপুরি একমত নয় জানিয়েছেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, আন্দোলনের সময় ভিসির বাড়িতে যে হামলার ঘটনা ঘটেছে তা পুরোপুরি জঙ্গি স্টাইলে হয়েছে। কিন্তু পুরো আন্দোলন জঙ্গিবাদের বহিঃপ্রকাশ বলে তিনি যে বক্তব্য দিয়েছেন তার সঙ্গে ঢালাওভাবে আমি একমত নই।

সোমবার (৯ জুলাই) দুপুরে রাজধানীর বনানীস্থ সেতু ভবনে দেশের সমসাময়িক রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন ওবায়দুল কাদের।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, কোটা আন্দোলনে বিএনপি সুবিধা নিতে চেয়েছে। তাই তারা এ আন্দোলনে উসকানি দিয়েছে। দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের কথায় তা প্রমাণিত হয়েছে। তারেক রহমান লন্ডন থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষক নেতার সঙ্গে ফোনে কোটা আন্দোলন নিয়ে কথা বলেছেন। এতেই তো প্রমাণ হয় এই আন্দোলনের পেছনে কারা মদদ দিচ্ছে।

কাদের বলেন, কোটা নিয়ে সরকার কাজ করছে। তারা বসে নেই। তার জন্য সবাইকে ধৈর্য্য ধরতে হবে। তবে কোটা সংস্কারের বিষয়ে সরকারের আন্তরিকতার ঘাটতি নেই। এনিয়ে নতুনকরে আন্দোলনের কিছু নেই।

সেতুমন্ত্রী বলেন, কোটা আন্দোলনের সময় ভিসির বাড়িতে যে হামলার ঘটনা ঘটেছে তা পুরোপুরি জঙ্গি স্টাইলে হয়েছে। কিন্তু পুরো আন্দোলন জঙ্গিবাদের বহিঃপ্রকাশ বলে তিনি যে বক্তব্য দিয়েছেন তার সঙ্গে ঢালাওভাবে আমি একমত নই।

তিনি বলেন, বিএনপির নেত্রী দুর্নীতির মামলায় দণ্ডিত হয়ে কারাগারে। সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করার দলটির মেরুদণ্ড ভেঙে গেছে। দাঁড়াতেই পারছে না। আসলে নিজেদের আন্দোলন করার মুরোদ নেই, তাই কোটা সংস্কার আন্দোলনে ভর করে কিছু একটা করতে চাইছে।

ভারতের একটি পত্রিকাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এইচ টি ইমামের বক্তব্যের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘ভারত বিএনপিকে পাত্তা দেবে না’ এইচটি ইমাম যদি এমন কথা বলে থাকেন তাহলে তিনি ঠিক বলেননি।

ভারত কাকে পাত্তা দেবে আর কাকে দেবে না তাতে আমাদের কিছুই যায় আসে না বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

মতামত দিন