পাকিস্তানে নির্বাচনী সভায় আত্মঘাতী হামলা, নিহত ১২

পাকিস্তানের পেশোয়ারে গতকাল মঙ্গলবার তালেবানবিরোধী এক রাজনৈতিক দলের সভায় আত্মঘাতী হামলা হয়েছে। এতে ১২ জন নিহত হন। এর মধ্যে ২৫ জুলাই অনুষ্ঠেয় নির্বাচনের এক প্রার্থী রয়েছেন। আহত ৫০ জন। আজ বুধবার রয়টার্সের এক খবরে এ তথ্য জানানো হয়।

পেশোয়ার সিটি পুলিশের প্রধান জামিল কাজি বলেন, আওয়ামি ন্যাশনাল পার্টির (এএনপি) সভায় এ হামলার ঘটনা ঘটে।

এখনো কেউ হামলার দায় স্বীকার করেনি।

টেলিভিশন ফুটেজে আহত ব্যক্তিদের নিয়ে উদ্ধারকারী ও পুলিশ সদস্যদের হাসপাতালে ছুটোছুটি করতে দেখা গেছে।

আত্মঘাতী হামলার পর ঘটনাস্থলের দৃশ্য। পেশোয়ার, পাকিস্তান, ১০ জুলাই। ছবি: এএফপি২০১৩ সালের নির্বাচনেও এএনপি তালেবান হামলার মূল লক্ষ্য ছিল। ওই সময় আত্মঘাতী হামলায় দলটির জ্যেষ্ঠ নেতা বশির বিলৌর নিহত হন। গতকালের হামলায় নিহত হন তাঁর ছেলে হারুন বিলৌর। তিনি প্রাদেশিক পরিষদ নির্বাচনের প্রার্থী ছিলেন।

আফগান সীমান্তঘেঁষা পাকিস্তানের এ শহর অনেক দিন ধরেই ইসলামি জঙ্গিদের ঘাঁটি।

দলের এক সমর্থককে সান্ত্বনা দিচ্ছেন আরেকজন। পেশোয়ার, পাকিস্তান, ১০ জুলাই। ছবি: এএফপিগত মাসে মার্কিন ড্রোন হামলায় পাকিস্তানি তালেবানপ্রধান মোল্লা ফয়জুল্লাহ নিহত হন। ২০১৩ সালে এএনপির বিরুদ্ধে পরিচালিত বেশির ভাগ হামলার দায় তিনি স্বীকার করেছিলেন। ইসলামি জঙ্গিদের বিরুদ্ধে পরিচালিত সেনা অভিযানে এএনপির সমর্থন থাকায় দলটির প্রতি ক্ষোভ ছিল তালেবানের।

আসন্ন নির্বাচনকে নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণ করতে এবং নির্বাচনে স্বচ্ছতা আনতে ৩ লাখ ৭১ হাজার সদস্য মোতায়েনের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

মতামত দিন