মেয়র খালেকের শপথ

খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে জয়ের ২০ দিন পর মেয়র হিসেবে শপথ নিলেন তালুকদার আবদুল খালেক। তাকে শপথ পড়িয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে এই শপথ অনুষ্ঠান হয়। অনুষ্ঠানে নবনির্বাচিত কাউন্সিলরদের শপথ পড়ান স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

গত ১৫ মের ভোটে দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলের প্রধান মহানগরে ভোট হয়। এতে মেয়র ছাড়াও ৩১ জন সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর এবং ১০ জন সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলরকে নির্বাচিত করে খুলনাবাসী।

অবশ্য শপথ গ্রহণ করলেও খালেকে মেয়রের পদে বসতে আরও দেড় মাসেরও বেশি সময় অপেক্ষা করতে হবে।

বর্তমান করপোরেশনের পাঁচ বছরের মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামী ২৫ সেপ্টেম্বর। মেয়র বিএনপি নেতা মনিরুজ্জামান মনির মেয়াদ সে পর্যন্তই। ফলে খালেককে দায়িত্ব গ্রহণ করতে হবে এর পরদিন। অর্থাৎ ২৬ সেপ্টেম্বর করপোরেশনের নব নির্বাচিত সদস্যরা দায়িত্ব বুঝে নেবে।

আবার খালেককে দায়িত্ব নেয়ার পর ১০ মাস চলতে হবে বিএনপির মেয়র মনি ঘোষিত বাজেট দিয়েই। আর এতে খালেকের নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি পূরণে প্রথম বছর কিছুটা ঝামেলায় পড়তে হবে।

এবার ভোটের আগে খুলনার উন্নয়নে খালেক ৩১ দফা প্রতিশ্রুতি ঘোষণা করেছিলেন খালেক। কিন্তু করপোরেশনের ঘোষিত বাজেটে এর পরিকল্পনা না থাকলে শুরুতেই পিছিয়ে পড়বেন তিনি। অবশ্য খালেক বলছেন, ঘোষিত বাজেট পরিবর্তনের সুযোগ আছে। পরে সম্পূরক বাজেট দিলেই চলবে। আর সাবেক মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালনের অভিজ্ঞতা আছে।

আর আগামীতে কী কী করতে চান, সেসব বিষয়ে আগাম পরিকল্পনাও করা আছে বলে জানান আওয়ামী লীগের নেতারা।

মতামত দিন